nijer shathe nijer kotha
কথোপকথন ও চিঠিপত্র

নিজের সাথে নিজের কথা – শাদমান আহসান

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমি১: “নারী ক্ষমতায়ন” নিয়ে লেখা উচিত।

আমি২: ভাই থামেন। আপনার বাবার লেখা কি কখনও পড়ছেন? ঐ রকম গভীরতা কি আপনার নিজের মধ্যে আছে? ঐ রকম সাবলীল প্রকাশভঙ্গি কি রাতারাতি অর্জন করা সম্ভব?

আমি১: কিন্তু লিখতে যে মন চায়। বাবাই তো অনুপ্রেরণা দেয়।

আমি২: বাবা তো দিবেই! কিন্তু যখন বারবার বাবা পত্রিকা, উপন্যাস, কবিতার বই পড়ার কথা বলছিল, শুনলেন না কেন? এগুলো পড়লে তো আজ লেখা আরও শাণিত হতে পারতো।

আমি১: জ্বি, ভুল হয়ে গেছে। তবে চেষ্টা করছি পরিবর্তন আনার।

আমি২: ঠিক আছে। লিখতে যদি এতোই চান তবে লিখেন।

আমি৩: ওই থাম। “নারী ক্ষমতায়ন” নিয়ে লিখতে চাস্, নিজের মায়ের খোঁজ নেস? রান্নাঘরে কয় লিটার ঘাম ঝরে জানস্?

আমি১: জানি। অল্প স্বল্প সাহায্য করি। আর আম্মুতো আরো বেশি লেখালিখির জন্য অনুপ্রেরণা দেয়। লিখলে আম্মুই সবচেয়ে খুশি হবে।

আমি৩: আচ্ছা যা লিখ্। কিন্তু লেখার সাথে কাজের যেন মিল থাকে।

আমি৪: আজ্ঞে জনাব, একটু দম নেন!

আমি১: মানে?

আমি৪: গতকালই তো পোস্ট দিলেন, আজকে আবার কেন? 

আমি১: আমি তো খারাপ কিছু লিখছি না। সমস্যা কোথায়?

আমি৪: মানুষ তো খাবে না!! একই জিনিস ঘনঘন খেতে ভাল লাগে?

আমি১: সবার জন্য লিখছি না, আমার নিজের ভাল লাগে, তা-ই লিখছি।

আমি৪: ও আচ্ছা!! ঠিক আছে লিখেন, “নারী ক্ষমতায়ন” না কী!! দেশে প্রধানমন্ত্রী নারী, তা-ও এসব নিয়ে লেখা লাগে!!

আমি১: হুম লাগে।

আমি৫: ওই ব্যাটা, ভণ্ডামি ছাড়্!

আমি১: কি করলাম আমি?

আমি৫: এই যে বললি মাত্র “সবার জন্য লিখছি না”, ঠিকই তো মনে মনে লাইক, শেয়ার, কমেন্ট চাস্। এসব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে পোস্ট দিয়ে নিজের কদর বাড়ানোকে ভণ্ডামি না বলে কি বলবো?!

আমি১: আমি তো সবার সাথে একাত্মতা ঘোষণা করতে চাইছি। এখানে ভণ্ডামির কিছু নেই।

আমি৬: আস্-সালামু-আলাইকুম ভাইয়া, একটি কথা বলতে পারি?

আমি১: ওয়া-আলাইকুম-সালাম। জ্বি বলুন।

আমি৬: আপনি তো নামাজ পড়েন, রোজা রাখেন, কুরআন শরীফ পড়েন; তো এই নারী ক্ষমতায়ন সম্পর্কে সহীহ হাদিস জানেন কী?

আমি১: জানি না।

আমি৬: জানা কি উচিত না? ইসলাম কিন্তু নারী অধিকার খর্বিত করে নাই।

আমি১: জ্বি সেই বিশ্বাস আছে। আপাতত সংবিধানের ১০ নং অনুচ্ছেদ নিয়ে ভাবছি। ( জাতীয় জীবনের সর্বস্তরে মহিলাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করিবার ব্যবস্থা গ্রহণ করিতে হইবে)

আমি৭: তুমি নিজে কি করো যে দেশের সব ক্ষেত্রে নারী অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে পারবে? কোন ক্ষমতা আছে তোমার? চাকরি বাকরি নাই, কেউ তোমাকে চিনে? আবার বড় বড় কথা বলো!!

আমি১: এই জন্য ফেসবুকের শরণাপন্ন। নিজের অবস্থান থেকেই দু’এক লাইন হলেও নারী ক্ষমতায়নের পক্ষে লিখতে চাই।

আমি৮: এই যে তুমি, শোন! নারী ক্ষমতায়ন নারী ক্ষমতায়ন করছো, রাস্তায় ভিখারি মেয়েটা এসে যখন গাড়ির জানালায় টোকা দেয় তখন কি কর?

আমি১: না দেখার ভান করি।

আমি৮: তোমার পোস্টে কি তাদের একবেলা ভাত জুটবে?

আমি১: নাহ!

আমি৮: তারপরও নারী ক্ষমতায়ন নিয়ে লিখতে চাচ্ছ?

আমি১: আমি চাচ্ছি দেশের সবার সাথে সুর মিলিয়ে নারী নির্যাতনের প্রতিবাদ ও নারী অধিকার নিশ্চিত করতে।

আমি৯: আচ্ছা, আপনি নারীদের ব্যাপারে এত হৃদয়বান, নিজের আত্মীয় স্বজনের খোঁজ নেন? নিজের বন্ধুদের একবারও কল দেন?

আমি১: খুব কম।

আমি৯: কাজটা কি ঠিক?

আমি১: মোটেই না।

আমি৯: তাহলে কি করা উচিত? 

আমি১: সমাজের পরিবর্তন কামনার সাথে সাথে নিজের পরিবর্তন সাধন।

আমি১০: আরে বাপরে বাপ, পোলায় কি গুরুগম্ভীর কথা বলে!! কার্ল মার্কসের সমাধিতে কি লেখা আছে জানস্?

আমি১: The Philosophers have only interpreted the world, in various ways. The point, however, is to change it.

আমি১০: তোর তাও মনে হয় দুনিয়া বদলাইবো?

আমি১: Once you choose hope, anything’s possible (Christopher Reeve)


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *