a scene from lover's heart
কবিতা

দ্যা সিন ফ্রম এ লাভার’স হার্ট – শ্রী অভীক চন্দ্র তালুকদার

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেভলন,হ্যান্ডসেনিটাইজার,আর সাবান কিনা স্টক করলাম,

সারাদিন তোমার গন্দ গন্দ হৃদয়টা স্ক্রাব দিয়া ডইল্যা ডইল্যা ধুইলাম,

ফেনা তুল্লাম,

বিশ সেকেন্ড ধইরা- আবার বিশ সেকেন্ড ধইরা- কচলাইতেই থাকলাম, কচলাইতেই থাকলাম,

এইরম চলতেই থাকলো! 

কই গন্দ তো গেলো না? 

খালি পঁচা বাশি মাংশ মাংশ উইঠ্যা আইলো, আমি কিছুই বুঝলাম না!

 তুমি কি এর আগে তুমার হৃদয়টা ধুইছিলা কখনো?

 কখনো কি ডিসওয়াসার দিয়া চুবায় রাখছিলা সারারাইত?

 গুড়া সাবান,বল সাবান মাখাইয়া কি খচছিলা পাক্কায়?

 দেশি আতর,বিদেশি সেন্ট কি ছিটাইছিলা ভুলেও?

 না,করো নাই, তাই অই হৃদয় দিয়া আইস্টা পচা গন্ধ আসতো! 

আমি প্রথম প্রথম ভাবছি অইটা প্রেমের গন্দ, অইটা ভালোবাসার গন্দ, সোহাগের গন্দ, 

পরে আস্তে আস্তে কিরম জানি খটকা লাগলো, 

এই গন্দ কিরম অসহ্য লাগতে লাগলো, 

আমি তাও ভাবছি-

তুমার প্রেম,তুমার ভালোবাসা যেমন ডিফ্রেন্ট, তুমার সোহাগ সোহাগ গন্দও সেইরম- ডিফ্রেন্ট!

 আমি জানি,আমি ভুল ভাবছি! 

দিন গেলো,রাইত গেলো,

 তুমার হৃদয়ের পঁচা গন্দ আরো বাড়তে থাকলো,

 সেই গন্দ ঘর ছাড়াইয়া, 

পাড়াপড়শি ছাড়াইয়া, 

আত্মীয় বন্ধু ছাড়াইয়া 

কইত্তে কই পৌছাইতে লাগলো-

 আমি ভাব্বারো পারি নাই, 

আমি জানবারো পারি নাই!

 রাইতে তোমার পাশে শুইতে আমার ঘিন্না লাগতো,

 আমার বমি পাইতো, 

পেট গুলাইয়া মনে হইতো কিডনি বাইরে চইল্লা আসবো- 

পঁচা গন্দের সাথে সাথে আমার জীবন্ডাও গন্দ ছুটাইতাছিল,

 আমারে পচাইতাছিল, জ্বলাইতাছিল, 

মাছির মতন সব গন্দ আমার কানে মাথায় ভনভন ভনভন করতাছিল।

 আমি খালি পাগল হইতাছিলাম!

 কিন্তু তুমি বুঝো নাই- তুমি বুঝবার চাও নাই!

কিন্তু সেইদিন তুমার শইলতে অন্য গন্দ আইলো, 

আমি ভাবলাম এইটা কিসের গন্দ?

 নতুন,এইটা কিসের গন্দ? 

পরে যখন বুঝলাম, আমার মাথায় রক্ত উইঠ্যা গেলো, 

প্রেম ভালোবাসা সোহাগের গুষ্টি মাইরা আমি তোমার মাতাল বুকে পারা দিয়া খাড়াইয়া গেলাম- 

রাগে আমার কপাল ফাইট্টা আগুল বাইড়াইলো, 

আমি তুমার গন্দওয়ালা হৃদয়টা চিড়া নিয়াইলাম হাতে 

গন্দ আইসা লাগলো নাকে- 

তুমার এলায় পরা শইলের উপর বমি কইরা দিলাম- গলগলাইয়া! 

বমির সাথে সাথে ফিরায় দিলাম পঁচা গন্দ 

তোমার মুখে 

তোমার বুকে, 

তোমার ভিতরে! 

গন্দ ছড়ায় দিলাম তুমার মতন কইরা তুমার তুমারে!

 আমি এহনও ধুইতাছি তুমার হৃদয়ের গন্দ,

 আমি দেখবার চাই এই গন্দ যাইতে আমারে কি কি করতে হইবো!

 কতো কি- মাখাইতে হইবো চুবাইতে হইবো ডুবাইতে হইবো?

 কতো কিছুর পর আমি পাইমু একটা এইরম হৃদয় 

যেইনে আমার শইলের গন্দই শুধু রইবো,

 যেই হৃদয় আমার গন্দেই খালি ধকধকাইবো

 ধকধক

 ধকধক

 ধকধক!


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *