ekdin hothath
কবিতা

একদিন হঠাৎ – রিহাব বিনতে হাসেম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

একদিন হঠাৎ তোমার কবিতার গুচ্ছ গুচ্ছ শব্দ,
অজস্র ছন্দ থেকে তুমি উঠে এসে জাপটে  ধরবে আমার হাত,
তুমি নাক ডুবাবে আমার বিষণ্ণ আধভেজা চুলে…
আমার জানালার বৃষ্টি পৌঁছে দেবে তোমাকে
আমার অনুচ্চারিত বাক্য সমূহ,
তারপর,
হঠাৎ একদিন তুমি কলম-কবিতা ছেড়ে
খয়েরি রঙের পাঞ্জাবি পরে
দাঁড়িয়ে থাকবে সারাদিন
হলদেটে রঙের দোতলা বাড়িটার পাশে
সমস্ত আকাশের মেঘ জড়ো হয়ে
দাঁড়াবে তোমার মাথার উপর,
তারপর সারাদিন বৃষ্টি হবে শুধু
তোমার জন্য, তোমাকে ঘিরে।
শ্লোগান ভুলে তোমার কবিতা আবৃত্তি করে দাঁড়িয়ে পড়বে
কয়েকজন তরুণ ছাত্রনেতা প্রেসক্লাবের সামনে।
হঠাৎ একদিন তুমি দেখতে পাবে,
তুমি গেঁথে আছো বকুলের মালা হয়ে
আদিবাসী কিশোরীর খোঁপার ভাঁজে।
ঘুম জড়ানো চোখে একদিন হঠাৎ দরজা খুলে দেখবে,
কাঁচাপাকা চুলের রোগা ডাকপিয়ন
দাঁড়িয়ে আছে তোমার জন্য এক ব্যাগ চিঠি নিয়ে,
তুমি ব্যস্ত হয়ে বসে পড়বে চিঠি নিয়ে ঘরের মেঝেতে,
অথচ কোথাও কোন চিঠিতে
খুঁজে পাবে না প্রেরকের নাম।
তোমার খুব করে জানতে ইচ্ছে হবে
তার বা তাদের নাম।


কোন একদিন তুমি দেখবে
তোমার সিগারেটের ধোঁয়ায়,
ঘন আচ্ছন্ন কুয়াশা জমেছে চারপাশে,
তুমি সেই কুয়াশা ভেদ করে
দেখতে চাইবে বাইরের জগৎ ,
অথচ দেখতে পাবে তোমার অতীতের পুনরাবৃত্তি…


হঠাৎ একদিন তুমি হেঁটে হেঁটে ক্লান্ত হয়েও,
খুঁজে পাবে না তোমার বাসার অপ্রশস্ত  গলি,
তোমার মনে হবে, পৃথিবীর শেষ প্রান্তে এসে থমকে গেছো..
তুমি ফিরে যেতে চাইবে,
অথচ পেছন ফিরে দেখবে-
সব রাস্তা মুছে গেছে।

তারপর?
একদিন হঠাৎ আমি দেখবো
আমার মুঠোফোনের ড্রাফট বাক্স থেকে
মুছে গেছে সব ক্ষুদে কবিতা,
মুছে গেছো কাল্পনিক তুমি।
আমার মনে হবে,
প্রচণ্ড এক শূন্যতা আমাকে গ্রাস করে ফেলছে,
ক্লসট্রোফোবিক মানুষের মতো আমার শ্বাসরুদ্ধ হয়ে আসবে,
প্রচণ্ড আতংকে আমি
সম্ভবত জ্ঞান হারিয়ে ফেলতে থাকবো!
আমার মনে হতে থাকবে
তুমি ডুবে যাচ্ছ শব্দগুচ্ছের জগতে,
সরে যাচ্ছে এ শহরের মেঘ তোমার থেকে দূরে,
থেমে যাচ্ছে বৃষ্টি-বাতাস,
বেরিয়ে যাচ্ছো তুমি কুয়াশার জাল ভেদ করে।

হঠাৎ মনে হবে
স্পষ্ট হচ্ছে পথঘাট, ফিরে যাচ্ছ তুমি সে পথে,
আমার দৃষ্টির আড়ালে ধীরে ধীরে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *